বাংলা দখলের লক্ষ্যে বাঙালি হলেন রাজনাথ

সৌমেন শীল, কলকাতা: বাঙালি হয়ে গিয়েছেন বিজেপি নেতা তথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। সেই কারণে নামের শেষের ‘সিং’ বদলে হয়ে গিয়েছে সিংহ। এই বদলটা খুবই দরকার ছিল। বাংলা দখলের লক্ষ্যে এই বদল খুবই প্রয়োজন ছিল।

সোমবার কলকাতায় অনুষ্ঠিত হবে ভারতীয় জনতা পার্টির ইস্টার্ন জোনাল কাউন্সিলের বৈঠক। কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাজনাথই ওই বৈঠকের প্রধান ব্যক্তি। লোকসভা নির্বাচনের আগে পশ্চিমবঙ্গে এবং সংলগ্ন অন্য রাজ্যগুলিতে সংগঠনের ভিত মজবুত করা এখন বিজেপির মূল লক্ষ্য। আর বাংলার ক্ষমতা দখল তো পদ্ম শিবিরের পাখির চোখ।

– Advertisement –

সেই সভায় যোগ দিতে রবিবার সন্ধ্যায় কলকাতায় পৌঁছে গিয়েছেন রাজনাথ। বিজেপি নেতা এবং কর্মীরা সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ অ্যাক্টিভ। প্রতি মুহূর্ত তাঁরা আপডেট করেন নিজেদের ফেসবুক বা ট্যুইটারে। এই নিয়ে বিরোধী শিবিরের কটাক্ষও শুনতে হয়। আর সেই সোশ্যাল মিডিয়াতেই এক বিপ্লব করে ফেলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

কলকাতায় এসে খুব নিয়ম মেনেই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সকলকে জানিয়েছেন যে তিনি বাঙালির প্রাণের শহরে পৌঁছে গিয়েছেন। সোমবারের বৈঠকের বিষয়টিও জানিয়েছিলেন। আর এখানেই ছিল চমক। ট্যুইটারে দেখা যাচ্ছে দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রোফাইলে তাঁর নাম বাংলায় লেখা। ‘রাজনাথ সিংহ’ নামের পাশে আবার ভেরিফায়েড তকমা দেওয়া নীল টিক চিহ্নটিও রয়েছে।

প্রাথমিক অবস্থায় বাংলায় বাংলা নাম দেখে মনে হতেই পারে কোনও ভুয়ো প্রোফাইল। কারণ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নামে ভুয়ো অনেক প্রোফাইল দেখা যায়। রাজনাথের ক্ষেত্রেও তেমন কিছু হওয়া অস্বাভাবিক নয়। তবে পাশের নীল টিক চিহ্ন দেখে অবিশ্বাসের কিছু থাকে না। তখনই বোঝা যায় কলকাতায় এসে নিজেকে বাঙালি করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। সিং থেকে হয়ে গিয়েছেন সিংহ।

এ হেন বাঙালিয়ানা রাজনাথ কখনও দেখাননি। বাংলায় তাকে কখনও কথা বলতেও শোনা যায়নি। ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের পাঁচ তারিখে ষষ্ঠদশ লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে কলকাতায় এসেছিলেন রাজনাথ সিং। সঙ্গে নরেন্দ্র মোদীও ছিলেন। ভাঙা বাংলায় কথা বলে বক্তব্য শুরু করেছিলেন মোদী। রাজনাথ সিং অবশ্য সেই পথে হাঁটেননি। হিন্দিতেই বক্তব্য রেখেছিলেন।

২০১৪ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি কলকাতার সভায়

সেই ঘটনার পরে পেরিয়ে গিয়েছে আরও প্রায় ৫৬ টি মাস। মাঝে অনেক ঘটে গিয়েছে অনেক কিছু। রাজ্য এবং জাতীয় স্তরের রাজনীতিতেও বদলে গিয়েছে অনেক কিছু। মাঝের এই সময়ের মধ্যে বাংলায় জমি শক্ত করেছে বিজেপির বঙ্গ ব্রিগেড। বাংলার অধিকাংশ লোকসভা আসন দখল করার টার্গেট স্থির করে ফেলেছেন দলের সভাপতি অমিত শাহ। এই মুহূর্তে বাংলা দখল পদ্ম শিবিরের পাখির চোখ। লক্ষ্যভেদ করতে হলে নিজেকেও তো বাঙালি করতে হবে! সেই কারণেই ‘সিং’ থেকে ‘সিংহ’ হয়ে গেলেন রাজনাথ।

রাজনাথ সিং এবং রাজনাথ সিংহ দু’জনেই এক এবং অভিন্ন ব্যক্তি। তবে এই বিষয়ে বিশ্বের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কোনও আদালত থেকে এফিডেফিট করেছেন কিনা তা জানা এখনও জানা যায়নি। আগামী কয়েকদিনে এমন কোনও বিজ্ঞাপন সংবাদপত্রে চোখে পড়লে অবাক হওয়ার কিছু নেই।

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published.